সাভারে পারিবারিক কলহের জেরে সংঘর্ষে আহত ৩

0
101

কেএম সবুজঃ  ঢাকার সাভারের রাজফুলবাড়ীয়ার তরফ রাজাঘাট এলাকায় পারিবারিক ঝগড়া বিবাদ নিয়ে একাধিক বার মারধর ও সংঘর্ষের ঘটনায় নারী পুরুষসহ তিনজন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় সাভার মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়, মামলা নং ২৬। তারিখঃ ১৩/০৪/২০২১ইং। এ ঘটনায় আহতরা হলেন, মোঃ আমান উল্লাহ (৫২), তার স্ত্রী মোছাঃ আছমা বেগম (৩৭), ছেলে মোঃ নয়ন (২০)।

বুধবার (১৪ এপ্রিল ২০২১ইং) সরেজমিনে গিয়ে এলাকাবাসী ও মামলা সূত্রে জানা যায়, সাভার মডেল থানাধীন রাজফুলবাড়ীয়ার তরফ রাজাঘাট গ্রামের হাজী আব্দল লতিফ এর ছেলে মেয়েদের জমিজমা ও বাড়ি ঘর নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক ঝগড়া বিবাদ হয়। এক পর্যায়ে আমান উল্লাহ এর সাথে তারই আপন ভাই অলি উল্লাহসহ ৩ ভাই বোনেরাসহ তাদের লোকজন ঝগড়া বিবাদ সৃষ্টি করেন। এদের দুই পক্ষের মাঝে মধ্যেই মারধর ও সংর্ষের ঘটনা ঘটে। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১১ এপ্রিল বেলা ১১ টার দিকে প্রথমে বাড়ির মহিলাদের সাথে ঝগড়া হয় দুই পক্ষের। এরপর একই দিন দুপুর ৩টার দিকে আবারও অতর্কিত ভাবে হামলা করা হয় আছমা বেগম ও তার স্বামী ছেলের উপর। স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল আবারও ওই পরিবারের সদস্যদের মধ্যে ঝগড়া বিবাদ ও মারধর এর ঘটনা ঘটেছে, এ ঘটনায় এক পক্ষের নয়ন ও তার বাবা মাসহ ৩জন আহত হয়েছে, আহতদের সংখ্যায় কম থাকায় তারা বরাবরই মারপিট ও হামলার শিকার হয়ে থাকেন।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী আছমা বেগম বলেন, প্রথমে তিনি বাদি হয়ে মামলা করার জন্য সাভার মডেল থানায় ৭জনকে বিবাদী করে অভিযোগ দায়ের করেন। এ ঘটনার বিষয়ে থানা পুলিশের তদন্ত চলমান থাকা অবস্থায় মিমাংসার কথা বলে বাড়িতে ডেকে নিয়ে আমান উল্লাহ এর ভাই বোনেরা আবারও ১৩ এপ্রিল সকালে তার স্বামী আমান উল্লাহসহ তাদেরকে মারপিট করে তার ভাসুরসহ তাদের লোকজন। এসময় তাদের ছেলে নয়ন এগিয়ে আসলে তাকেও রড দিয়ে পিটিয়েছে তারা। এ বিষয়ে আমান উল্লাহ বলেন, তাদের উপর অতর্কিত ভাবে হামলা করেন তার বড় ভাই মাদক সেবনকারী ও ব্যবসায়ী সাফায়েত উল্লাহ (৫৩), ফয়েজ উল্লাহ (৪৬), অলি উল্লাহ (৪৪), সাইফুল ইসলাম (৩৫)সহ তাদের লোকজন। তিনি আরও বলেন, আমরা সংখ্যায় কম দেখে ওরা আমাদেরকে মারছে আমি আদালতের কাছে সঠিক বিচার চাই।

উক্ত মামলার বাদী আমান উল্লাহ এর ছেলে নয়ন বলেন, আমার মা বাবার উপর অতর্কিত হামলা করছে আমার চাচারাসহ তাদের লোকজন, আমি বাধা দেওয়ায় তারা আমাকেও রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করেছে। আমার মা বাবাসহ আমরা তিনজন আঘাতপ্রাপ্ত হওয়ার পর লোকজন এগিয়ে এসে আমাদেরকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য গাড়িতে তুলতেই তারা আবারও মারপিট করে, লোকজন এসময় বাধা দিয়ে আমাদেরকে উদ্ধার করে নিয়ে সাভার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করেন। তিনি আরও বলেন, আমার বাবার মাথায় ২টি সেলাই ও আমার মা এর মাথায় ৩টি সেলাই দেয়া হয়েছে। আমি এ বিষয়ে সাভার মডেল থানায় মামলা করার জন্য অভিযোগ দায়ের করেছি, পুলিশ মামলা রেকর্ড করেছেন। এ বিষয়ে চিকিৎসক জানান, আহতদের শরীরের বিভিন্ন স্থানে নিলাফোলা জখম রয়েছে। প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে, এটি পুলিশ কেইস বলেও তিনি জানান।

এ বিষয়ে জানতে ফয়েজ উল্লাহ ও সাফায়েত উল্লাহ এবং সাইফুল ইসলামের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাদেরকে পাওয়া যায়নি। স্থানীয়রা বলেন, সাফায়েত উল্লাহ একজন খারাপ প্রকৃতির লোক, মাদক সন্ত্রাসীদের সাথে সে জড়িত, সে নিজেও মাদক সেবন করে আর মাদক ব্যবসা করে বলে অনেকেই জানান। উক্ত এলাকা ক্রাইম জোন এলাকা বলে অনেকেই জানান।

বুধবার দুপুরে এ ব্যাপারে সাভার মডেল থানার (এসআই) সুজন শিকদার গণমাধ্যমকে বলেন, পারিবারিক ঝগড়া বিবাদ নিয়ে একাধিক বার আমান উল্লাহ ও তার স্ত্রী আছমা এবং ছেলে নয়ন উপর অতর্কিত ভাবে হামলা করেছে সাফায়েত উল্লাহ, ফয়েজ উল্লাহ ও অলি উল্লাহসহ তাদের লোকজন। এতে তিজন আহত হোন, এটি পুলিশ কেইস। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে সাভার মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা নং ২৬। তারিখঃ ১৩/০৪/২০২১ইং। এই পুলিশ অফিসার আরও বলেন, এ ঘটনায় জড়িত থাকার অপরাধে অলি উল্লাহ নামের একজনকে রাতেই গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনার সাথে জড়িত অন্য আসামীদেরকেও গ্রেফতার করতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। উক্ত গ্রেফতারকৃত আসামীকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হবে বলে তিনি জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here