সাঁথিয়ায় কিশোরীকে গণধর্ষণের পর হত্যাচেষ্টা,এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে মূলহোতারা

0
1525

বিশেষ প্রতিনিধিঃ গত ১৬ ই নভেম্বর ২০১৯ইং রবিবার সন্ধ্যায় বন্ধু নিরবের (১৬) ফোন পেয়ে কথা বলতে আসে লিমা (১৬)। এরপর নিরবের সঙ্গে থাকা কুচক্রি অভিযুক্ত দুই বন্ধু বেলাল ও শাহ আলম ওরফে বিশার যোগ সাযোগে কৌশলে বাড়ির অদূরে একটি কবরস্থানের দক্ষিণপাশের বাঁশবাগানের মধ্যে নিয়ে যায়। নিয়ে যাওয়ার পর তিন বন্ধু মিলে লিমাকে (১৫) পালাক্রমে ধর্ষণ করে অচেতন অবস্থায় হত্যার উদ্দেশ্য গলায় উড়না পেচিয়ে একটি মেহগনি কাছের সাথে ঝুলিয়ে রাখে। মেয়েটির গংরানির শব্দে এলাকাবসী টের পেয়ে উদ্ধার করে তাৎক্ষনিক চিকিৎসার জন্য স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং পরে পাবনা সদর হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য  প্রেরণ করা হয় । এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ধর্ষিতার মা বাদী হয়ে অভিযুক্ত ধর্ষকদের বিরুদ্ধে সাঁথিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন । উল্লেখ্য, লিমা (১৫) সাঁথিয়ার থানাধীন করমজা ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ড তলট গ্রামের ইটভাটার শ্রমিক দিন মজুর আনি শেখের মেয়ে। পরিবারের দারিদ্রতার কারণে বর্তমানে সপ্তম শ্রেনীতে পড়ুয়া অবস্থায় পড়াশোনা বাদ পড়ে যায় তার। মেয়ের এমন ঘটনার কারণে অসহায়ত্ববোধ করছে বাবা,মা । এলাকাবাসীর দাবি, এই ঘটনার সাথে জড়িত নিরব (১৬),বেলাল (১৯) ও শাহ আলম ওরফে বিশা (১৯) কে আইনের আওতায় এনে দ্রুত বিচার করা হোক । এ বিষয়ে করমজা ইউপির ২ নং ওয়ার্ড মেম্বার আঃ জব্বারের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করতে চাইলে কোন রেসপন্স পাওয়া যায়নি ।

উল্লেখ্য,
অভিযুক্ত ধর্ষক, বেলাল (১৯) করমজা ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ড এর গোলজার ফকিরে ছোট ছেলে,
আর নিরব (১৬) একই গ্রামের আঃ হালিম প্রমানিকের বড় ছেলে ও  শাহ আলম ওরফে বিশা (১৯) একই গ্রামের মধ্যপাড়ার হাবিবের
ছেলে । বেলাল ও বিশা পেশায় ভ্যান চালক । তাদের বিরুদ্ধে এর আগেও বিভিন্ন অসামাজিক কাজের
সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে । ঘটনার পরেই শাহ আলম ওরফে বিশাকে (১৯) ধর্ষিতা লিমার
(১৫) জবানবন্দির প্রেক্ষিতে গ্রেফতার করা হলেও এখনো পর্যন্ত ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছে
ঘটনার মূলহোতা বেলাল ও নিরব । অনুসন্ধানের ভিতিতে জানা যায়, বেলাল ও নিরব পলাতক রয়েছে
। এ বিষয়ে সাঁথিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসাদুজ্জামান ঘটনার সত্যতা স্বীকার
করে গণমাধ্যমকে বলেন, অভিযোগের পরেই ওই রাতেই অভিযুক্ত শাহ আলম ওরফে বিশা (১৯) নামের
একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং অন্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here